স্বাস্থ্য টিপস বিডি https://www.shastotipsbd.com/2022/01/10-tips-for-gaining-weight.html

মোটা হওয়ার সহজ উপায় | জেনে নিন ১০ টি কার্যকরী টিপস

মোটা হওয়ার সহজ উপায়, মোটা হওয়ার সহজ উপায়, মোটা হওয়ার সহজ উপায়, মোটা হওয়ার সহজ উপায়, মোটা হওয়ার সহজ উপায়, মোটা হওয়ার সহজ উপায়, মোটা হওয়ার সহজ উপায়, মোটা হওয়ার সহজ উপায়, মোটা হওয়ার সহজ উপায়, মোটা হওয়ার সহজ উপায়, মোটা হওয়ার সহজ উপায়,

মোটা শব্দটি আমাদের কারও কাছে বিরক্তিকর লাগলেও কারও কাছে আবার মোটা হওয়া সোনার হরিণের মত। কারণ যারা একটু বেশিই শুকনা তাদের নিজের অজান্তে হারিয়ে যায় নিজের নামটি পর্যন্ত, শুনতে হয় শুটকি, জিবন্ত কংকাল,অভাবি,পাটকাঠি,রোগী,পাতলু ইত্যাদি এমন কি আরো শুনতে হয়, কিরে তোদের ঘরে ভাত নেই!কতদিন ধরে ভাত খাসনা,বাতাসে উড়ে যাবিতো এসব কথা তাদের নিত্য পরিচিত। অনেক জন আছেন যারা মোটা হতে অনেক কিছুই ট্রাই করে ফেলেছেন কিন্তু বেশিরভাগ সময়ই কোন উপকার পাচ্ছেন না। বয়স আর উচ্চতার তুলনায় ওজন কম হওয়া খুবই সমস্যার একটা ব্যাপার। তাই আজকে আমরা আপনাদের জানাবো মোটা হওয়ার সহজ উপায় সম্পর্কে, ১০টি কার্যকরী টিপস।


মোটা হওয়ার সহজ উপায়

কোন সমস্যার সমাধান করার আগে সেই সমস্যার কারণগুলো সম্পর্কে জেনে রাখতে হবে আমাদের। মোটা হওয়ার সহজ উপায়গুলো জানার আগে চলুন আগে জেনে নিই ওজন কম হওয়ার কারণ গুলো কি কি?


ওজন কম হওয়ার কারণ

বিভিন্ন কারণে ওজন কম হতে পারে। অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাস(Irregular Eating Habits), জেনেটিক কারণ(Genetic factors), মানসিক স্বাস্থ্য সমস্যা(Mental health problems), ডায়রিয়া, ক্যান্সার, ডায়বেটিস, এইডস, হাইপারথাইরয়েডিজম(Hyperthyroidism), আর্থ্রাইটিস(Arthritis), যক্ষ্মা, কিডনির সমস্যা, ফুসফুসের সমস্যা, ড্রাগ নেওয়া ইত্যাদি। এছাড়া বয়সের জন্যও ওজন কম হয়ে থাকে। ওজন বাড়ানোর ক্ষেত্রে সর্বপ্রথম এইদিকগুলো লক্ষ্য রাখতে হবে।


চলুন জেনে নেই মোটা হওয়ার সহজ উপায়গুলো

সমস্যা যখন রয়েছে তখন এর সমাধানও আছে। মোটা হওয়ার জন্য কিছু সহজ পদ্ধতি চলুন জেনে নেই।

সূচিপত্র:

(১) ব্যায়াম করা

অনেকেই ভেবে থাকেন ওজন কমাতেই ব্যায়াম করা প্রয়োজন, কিন্তু এই ধারণা একদমই ঠিক না। ওজন কমাতে আমরা যেমন ব্যায়াম  করে থাকি ঠিক তেমনি ওজন বাড়াতেও ব্যায়াম করা প্রয়োজন। এক্ষেত্রে শুধু দৌড় ঝাঁপ যথেষ্ট না। দরকার প্রতিদিন নিয়মমাফিক ব্যায়াম করা। জিমে অভিজ্ঞ ট্রেইনার থাকেন। আপনার ওজন এবং চেহারা দেখে তিনিই আপনাকে বলে দিবেন কোন ব্যায়াম আপনার করা প্রয়োজন।


(২) বার বার খাবার গ্রহণ 

একজন মানুষের মোটা হওয়ার জন্য বার বার খাবার গ্রহন করা উচিৎ। প্রতি ২ ঘন্টা পর পর অল্প পরিমাণ করে কিছু খেতে হবে। কিন্তু যারা ওজন বৃদ্ধি করতে চাচ্ছেন তারা ২ ঘন্টা পর পর বেশি করে খেতে হবে। এসময় আপনি দুধ, দই, ফল, ছানা ইত্যাদি খেতে পারেন। এতে আপনার শরীরে মধ্যে পুষ্টির পাশাপাশি ওজনও বৃদ্ধি পাবে। এটি মোটা হওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায়।


(৩) খাবারে রাখুন কার্বোহাইড্রেড 

ওজন বৃদ্ধিতে Carbohydrate খুবই প্রয়োজন। খাবারের তালিকায় কার্বোহাইড্রেড(Carbohydrate) অবশ্যই রাখবেন। ভাত ও রুটি কার্বোহাইড্রেডের(Carbohydrate) প্রধান উৎস। তাই প্রতিদিন অন্তত ২ বার কার্বোহাইড্রেড(Carbohydrate) খাবেন। ভাত ও রুটি কার্বোহাইড্রেডের প্রধান উৎস তার মানে এই না যে আপনি বেশি বেশি খাবেন। আপনাকে অবশ্যই অতিরিক্ত ফ্যাটের দিকেও নজর রাখতে হবে। তাই প্রতিদিন কার্বোহাইড্রেড খাবেন পরিমিত কিন্তু পরিমাণের তুলনায় কিছুটা বেশি।মোটা হওয়ার সহজ উপায় গুলোর মধ্যে এটি অন্যতম।


(৪) বেশি ক্যালোরি গ্রহন

ওজন কমানোর ক্ষেত্রে আমরা কম ক্যালোরি গ্রহণ করি। কিন্তু এই ক্ষেত্রে উলটা করতে হবে আপনাকে, যতটুকু ক্যালোরি বার্ন করবেন তার চেয়ে দ্বিগুণ ক্যালোরি গ্রহণ করতে হবে। ওজন বৃদ্ধির জন্য শরীরের পরিমাণের তুলনায় বেশি ক্যালোরি গ্রহন করুন। ওজন দ্রুত বৃদ্ধি করতে চাইলে দিনে ৭০০ ক্যালোরি বেশি গ্রহণ করতে হবে, আর যদি ওজন দেরিতে বাড়াতে চান তাহলে প্রতিদিন ৫০০ ক্যালোরি বেশি গ্রহণ করতে হবে। এভাবে এক সপ্তাহ করলেই আপনার ওজন বৃদ্ধি পাবে।


 (৫) সঠিক প্রোটিন গ্রহণ

ওজন বৃদ্ধি করতে শুধুমাত্র ক্যালোরিই যথেষ্ট না। ক্যালোরির পাশাপাশি সঠিক প্রোটিন গ্রহণ করতে হবে। সঠিক প্রোটিন গ্রহন না করলে ক্যালোরি বাড়তি ফ্যাটের কারণ হয়ে দাঁড়াবে। তাই প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় প্রোটিন জাতীয় খাবার যেমন ডিম, ডাল ও দুধ অবশ্যই রাখবেন।


(৬) ড্রাই ফ্রুটস খাবেন 

ড্রাই ফ্রুটসে আছে প্রচুর পরিমাণে ক্যালোরি ও ফ্যাট যা ওজন বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। প্রতিদিন সকাল বেলা ঘুম থেকে উঠেই ২টি কাজু ও ২টি কিসমিস খাবেন। এইটা কোনভাবেই ভুলবেন না। আর সকালের নাস্তায় রাখুন পেস্তা। ওজন বৃদ্ধিতে আপনার ডায়েট চার্টে বাদামের পরিমাণ বেশি রাখুন। এভাবে নিয়ম মেনে ড্রাই ফ্রুটস খেলে দেখবেন এক মাসের মধ্যেই আপনার ওজন বৃদ্ধি পাচ্ছে।


(৭) টেনশনমুক্ত থাকুন

সব সমস্যার সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে টেনশন। ওজন বৃদ্ধিতে যেমন টেনশনমুক্ত থাকা প্রয়োজন হয় ঠিক তেমনি ওজন কমাতেও আপনার টেনশনমুক্ত থাকা খুবই প্রয়োজন। আজকাল টেনশনমুক্ত থাকা খুবই কঠিন তবুও চেষ্টা করবেন যতটা সম্ভব টেনশনমুক্ত থাকার।


(৮) পরিমিত ঘুমান 

শরীর ঠিক রাখতে ঘুম আবশ্যক। প্রতিদিন ৮-১০ ঘন্টা অবশ্যই ঘুমাতে হবে। এর থেকে কম হলে আপনার ওজন বৃদ্ধিতে সমস্যার কারণ হতে পারে। এছাড়া ঘুম থেকে উঠে প্রতিদিন নিয়ম করে ইয়োগা বা যোগাসন, ব্যায়াম করুন। এতে আপনার ওজন দ্রুত বৃদ্ধি পাবে।


(৯) ঘুমানোর আগে দুধ মধু খান

ঘুমোতে যাওয়ার আগে এমন কিছু খাবেন যা বেশি পুষ্টিকর এবং ক্যালোরিযুক্ত। তাই প্রতিদিন ঘুমানোর আগে দুধ ও মধু মিশিয়ে খেতে পারেন। কারণ দুধ ও মধুতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালোরিযুক্ত থাকে। এটি ওজন বৃদ্ধিতে পরীক্ষিত এবং মোটা হওয়ার সহজ উপায়।


(১০) ডায়েটে চকলেট এবং চিজ রাখুন 

সচরাচর বাহিরের খাবার খেতে আমরা নিষেধ করে থাকি। কিন্তু বাহিরের খাবার যেমন আইসক্রিম, পেস্ট্রি, বার্গার ইত্যাদি খাবার খুবই কার্যকরী ওজন বৃদ্ধিতে। এতে ফ্যাট থাকে,ফলে বেশি খেলে শরীরের জন্য ভীষণ ক্ষতিকর! আপনি চাইলে এগুলো খেতে পারেন কিন্তু তা অবশ্যই পরিমাণ মতো হতে হবে। আপনার প্রতিদিনের ডায়েটে চকলেট এবং চিজ রাখতে পারেন।

ওজন বৃদ্ধি, হ্রাস অথবা শারীরিক যেকোন কাজের ক্ষেত্রে পানি খুবই উপকারী। প্রচুর পরিমাণে পানি পান করতে হবে। নিয়ম করে এই মোটা হওয়ার সহজ উপায় লক্ষ্য করলেই আপনি ওজন বৃদ্ধি করে পাবেন সুন্দর স্বাস্থ্য। নিজের যত্ন নিন ভালো থাকুন সুস্থ্য থাকুন।


অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

স্বাস্থ্য টিপস বিডি কি?